হুমায়ূন আহমেদের স্মরণে নুহাশপল্লীতে নানা কর্মসূচী পালিত


বৃহস্পতিবার নন্দিত কথাসাহিত্যিক ও নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১২ সালের এই দিনে লক্ষ-কোটি ভক্তকে কাঁদিয় তিনি পৃথিবী ছেড়ে পরপারে পাড়ি জমান। তাই এই দিনটিকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতো এবারও হুমায়ূন আহমেদের সবচেয়ে প্রিয় স্থান গাজীপুর নুহাশপল্লীতে কোরআনখানি ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

প্রায় একই আয়োজন থাকছে লেখকের বাবার বাড়ি নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় নিজ প্রতিষ্ঠিত স্কুল ‘শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠ’ ও লেখকের জন্মস্থান মোহনগঞ্জ শেখ বাড়িতেও। নুহাশপল্লীতে আয়োজিত আজকের দোয়া-মাহফিলে অংশ নিচ্ছে গাজীপুর এলাকার এতিমখানার অসংখ্য শিশু।

এ প্রসঙ্গে হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী ও অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন বলেন, ‘ছয় বছর হতে চলল, প্রিয় হুমায়ূন আহমেদ নেই আমাদের মাঝে। তার চলে যাওয়ার পর এমন একটি দিনও যায়নি যেদিন আপনি, আমি কোনো না কোনোভাবে এই মানুষটাকে স্মরণ করিনি। তার বিদায়ের দিন উপলক্ষে এবারও নুহাশপল্লীতে আমরা কোরআনখানি এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করছি। আমাদের সঙ্গে থাকছে গাজীপুর এলাকার কয়েকটি এতিমখানার শিশুরা। বাদ জোহর দোয়া মাহফিলের পর আমরা হুমায়ূনকে স্মরণ করব এবং সবকটি শিশুকে নিয়ে তার প্রিয় খাবার উপভোগ করব। আমার বিশ্বাস, ওপার থেকে এই দৃশ্য দেখে হুমায়ূন আহমেদ অনেক খুশি হবেন’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*