W3vina.COM Free Wordpress Themes Joomla Templates Best Wordpress Themes Premium Wordpress Themes Top Best Wordpress Themes 2012

তনু হত্যার ৫ মাসেও তদন্ত কার্যক্রম স্থবির

Filed under: কুমিল্লা সদর,মুরাদনগর |

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যার ৫ মাস পূর্ণ হলো আজ ২০ আগস্ট। কিন্তু দীর্ঘ ৫ মাসেও মামলার তদন্তে কোনো অগ্রগতি নেই। চিহ্নিত হয়নি এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ঘাতকরা।
t
রহস্যজনক কারণে স্থবির হয়ে গেছে তদন্ত কার্যক্রম। মামলার তদন্ত সংস্থা সিআইডিও নিরব। এদিকে, ডিএনএ নমুনা পরীক্ষায় ৩ ধর্ষকের শুক্রাণু পাওয়া গেলেও ঘাতকদের গ্রেফতারে বা মামলার তদন্তে দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি নেই। এ নিয়ে তনুর বাবা-মা ও স্বজনরা মামলার ন্যায় বিচার পাওয়া নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন।

জানা যায়, গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাসের অভ্যন্তরে পাওয়ার হাউজ এলাকার একটি জঙ্গলে কলেজছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর মরদেহ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় তনুর বাবা ইয়ার হোসেন বাদী হয়ে ২১ মার্চ কোতোয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাতনামা ঘাতকদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। কিন্তু এ হত্যাকাণ্ডের আজ ৫ মাস পূর্ণ হলেও এ পর্যন্ত ঘাতকদের শনাক্ত বা আসামি গ্রেফতারে দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি নেই।

সিআইডি সন্দেহভাজনসহ সামরিক-বেসামরিক অর্ধশতাধিক ব্যক্তির সাক্ষাৎকার নিলেও হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতরা সনাক্ত বা গ্রেফতার হয়নি। এছাড়া এ হত্যার রহস্য উদঘাটন বা ডিএনএ নমুনায় ৩ ধর্ষণকারীর শুক্রাণু পাওয়া গেলেও ডিএনএ নমুনা ম্যাচিং কার্যক্রমও শুরু করতে পারেনি সিআইডি।

সিআইডি-কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার ড. মো. নাজমুল করিম খান বদলির পর গত ২৫ জুলাই এ পদে যোগদান করেন শাহরিয়ার রহমান। তিনি তনুর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও ঘাতকদের গ্রেফতারে আশ্বাস দিয়েছিলেন। এরপর থেকে সিআইডির কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি।

এদিকে, গত ৪ এপ্রিল ও ১২ জুন দুই দফা ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে তনুর মৃত্যুর কারণ খুঁজে না পাওয়া, সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করে মেলানোর (ম্যাচ) কার্যক্রম শুরু করতে না পারা, প্রথম তদন্ত কর্মকর্তার বদলি এবং মামলার তদন্তেও কোনো অগ্রগতি না থাকায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন তনুর বাবা-মা।

তনুর বাবা ইয়ার হোসেন ও মা আনোয়ারা বেগম বলেন, ৫ মাস অতিক্রান্ত হয়ে গেল কিন্তু খুনিদের কেউ এখন পর্যন্ত গ্রেফতার হলো না। সিআইডির উপর আস্থা রাখতে চাই, এছাড়া আর কি করার আছে। জানি না মেয়ের হত্যাকারীদের গ্রেফতার বা বিচার দেখে যেতে পারবো কিনা।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সিআইডির পরিদর্শক গাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম বলেন, মামলাটি তদন্তাধীন আছে। তাই এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করবো না।

You must be logged in to post a comment Login